বার্সাকে শিরোপা জিতিয়ে মেসির দুই রেকর্ড (ভিডিও)

অ্যাটলেটিকো বিলবাওকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে কোপা দেল রে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বার্সেলোনা। ক্লাবটির ইতিহাসে এটি ৩১তম কোপা দেল রে শিরোপা। সবমিলিয়ে ইউরোপিয়ান মানদণ্ডে ৯২তম শিরোপা জিতল বার্সেলোনা।

দলের এই শিরোপা জয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন অধিনায়ক লিওনেল মেসি। দর্শনীয় দুই গোলে দলকে এনে দিয়েছে হালি গোলের জয়। পাশাপাশি নিজেও গড়েছেন জোড়া রেকর্ড।

শনিবার রাতটা ছিল কাতালানদের, রোমান কোম্যানের। আর বার্সা অধিনায়ক আজেন্টাইন খুদেরাজ লিওনেল মেসির তো বটেই।

এদিন শিরোপাখরা কাটাল স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা। প্রায় দুই বছরের অপেক্ষার পর স্পেনের ঘরোয়া ফুটবলের দ্বিতীয় মর্যাদার আসন কোপা দেল রে’তে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বার্সেলোনা।

এই জয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন লিওনেল মেসি। করেছেন জোড়া গোল। দুটো গোলই ছিল দুর্দান্ত ও দর্শনীয়।

ম্যাচের ৬৮ মিনিট থেকে জাদু দেখানো শুরু করেন মেসি। নিজেদের অর্ধ থেকে বল নিয়ে ডি-ইয়ংয়ের সঙ্গে বল দেওয়া-নেওয়া করে ঢুকে পড়েন বিলবাওয়ের ডি-বক্সে। ছয় গজের বক্সের মাথা থেকে কোনাকুনি এক শটে জাল কাঁপান মেসি।

ম্যাচের ৭২ মিনিটের সময় জর্দি আলবার এসিস্টে বিলবাওয়ের জালে নিজের দ্বিতীয় গোল পূরণ করেন বার্সা অধিনায়ক।

এ দুই গোলের সুবাদে দুটো রেকর্ডের মালিক হলেন মেসি। কোপা দেল রের ফাইনালে যে কোনো খেলোয়াড়ের চেয়ে মেসির গোলসংখ্যা এখন বেশি। বর্তমানে তার গোলসংখ্যা ১০।

টুর্নামেন্টের ফাইনালের ইতিহাসে তেলমো জারাকে ছাড়িয়ে এখন মেসিই সর্বোচ্চ গোলদাতা।

মৌসুমভেদে মেসির গোলসংখ্যা
২০০৮-০৯ : ৩৮
২০০৯-১০ : ৪৭
২০১০-১১ : ৫৩
২০১১-১২ : ৭৩
২০১২-১৩ : ৬০
২০১৩-১৪ : ৪১
২০১৪-১৫ : ৫৮
২০১৫-১৬ : ৪১
২০১৬-১৭ : ৫৪
২০১৭-১৮ : ৪৫
২০১৮-১৯ : ৫১
২০১৯-২০ : ৩১
২০২০-২১ : ৩১

এ ছাড়া এ দুই গোলের সুবাদে চলতি মৌসুমে সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলে ৩১ গোল হয়ে গেছে মেসির। ২০০৮-০৯ মৌসুম থেকে টানা ১৩ আসরে ৩০ বা এর বেশি গোলের রেকর্ড গড়লেন তিনি। এর আগে টানা ১২ মৌসুমে ৩০-এর বেশি গোল করেছিলেন জার্মানির জার্ড মুলার।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *