কেন্দুয়ায় হেলমেট পরে বসতবাড়ীতে হামলা: ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় পূর্ব শত্রুতার জেরে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। কেন্দুয়ায় উপজেলার চিলিমপুর গ্রামের বাসিন্দা মোঃ রোকনুজ্জামান খানের পৌরশহরের নতুন বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন বসতবাড়ীতে শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে এ হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনাটি ঘটে। রোকনুজ্জামান খান কেন্দুয়া উপজেলা কৃষকলীগের প্রচার সম্পাদক।

জানাযায়, ১৫/২০ জন দলবল নিয়ে রামদা বল্লম, লাটিসহ বিভিন্ন অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হেলমেট পরা অবস্থায় শুক্রবার রাত ৮টার দিকে রোকনুজ্জামান খানের বসতবাড়িতে অতর্কিতে হামলা চালিয়ে দরজা জানালা ভাঙচুর করে এবং ঘর থেকে মোটা অংকের টাকাসহ ১০ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়।

অভিযোগকারী ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, এই ঘটনার কিছুক্ষণ আগে বাসস্ট্যান্ডের পশ্চিম পাশে রুকন খানের বড় ভাই হারুন খানের উপর পানি ছিটিয়ে দেয়া নিয়ে উক্ত হামলাকারীর সাথে কথা কাটাকাটি হয় এসময় হারুন খান কে ছুরি দিয়ে চোখে আঘাত করে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে চলে যায় তারা।

স্থানীয়রা হারুনকে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। বর্তমানে হারুন খান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।

এর আধা ঘন্টা পর ১৫/২০ জনের একটি দল নিয়ে রামদা বলম লাটিসহ বিভিন্ন অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হেলমেট পরা অবস্থায় রোকনুজ্জামান খানের বসতবাড়িতে অতর্কিতে হামলা চালিয়ে দরজা জানালা ভাঙচুর করে এবং বসতবাড়ীর লোকজনকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ঘর থেকে মোটা অংকের টাকাসহ ১০ ভরি স্বর্ণালংকার লুটপাটের ঘটনা ঘটায়।

এ বিষয়ে শনিবার রাতে কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) কাজী শাহনেওয়াজ বলেন, বিষয়টি শুনেছি এ ব্যাপারে এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *